স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা

ডিপ্রেশন কি ও ডিপ্রেশন থেকে কিভাবে বেরিয়ে আসবেন

ডিপ্রেশন বলতে আপনি কি বুঝেন?ডিপ্রেশন হল একটি নেগেটিভ চিন্তাধারা,কাজকর্ম দ্বারা তৈরি একটি রোগ।এরোগে বিভিন্ন মাধ্যমে আক্রান্ত হতে পারেন যেমন আপনি আপনার রিলেশনশিপ নিয়ে একটু কনফিউজড অথবা আপনার পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট করতে পারতেছেন না অথবা হতে পারে আপনার লক্ষ্যে আপনি পৌছতে পারতেছেন না।

এ পর্যায়ে আমরা আলোচনা করব ডিপ্রেশনের কয়েকটি চিহ্ন,যেগুলো দেখে আপনি বুঝতে পারবেন এই লোকটি ডিপ্রেশনে আছে।

মানসিকঃ

  • সব সময় রাগান্বিত বা বিরক্তিকর অবস্থায় থাকা।
  • বন্ধুবান্ধব আত্মীয়স্বজন বা পরিবার-পরিজনকে এভোয়েড করে চলাফেরা।
  • চোখে চোখে মুখে একদম আশাহীন,সেড মুড ও অসহায় মুল্য হীনের মত থাকা।
  • নিজেকে সব সময় ছোট ভাবা,নিজেকে দিয়ে কিছু হবে না এমন কিছু ভাবা।

শারীরিকঃ

  • খাদ্যবাসের পরিবর্তন
  • ঘুমের মধ্যে পরিবর্তন, রাত জেগে থাকা,সকালে ঘুম থেকে অনেক দেরি করে উঠা।
  • নিজের চিন্তাধারা ও কথা বার্তায় পরিবর্তন।
  • কোন কাজ সব সময় শেষ না করা
  • হঠ্যাৎ করে মন খারাপ ও আনমনা ভাবে থাকা।

সিরিয়াস কিছু সিনড্রোমঃ

  • সব সময় আত্নহত্যা করার কথা ভাবা,সবার কাছ থেকে দূরে থাকা।
  • এছাড়াও আরো কিছু সমস্যা থাকতে পারে যে গুলোর মধ্যে প্রধান হলঃ
  • ব্রেকআপ হওয়া বা প্রিয় মানুষ পাত্তা দেয় না এমন কিছু হলে।
  • নিজের ভালবাসার মানুষের মৃত্যুতে।
  • কাউকে আপনি ভালবাসলেন কিন্তু অপজিটের মানুষ টা পাত্তা দেয় না এমন একটা অবস্থায়।
  • সব কিছুর চাপ সামলাতে না পারা।
  • পড়াশোনায় মনোযোগী না হতে পারা বা বার বার ফেইল করা।
  • কোন অপরাধ মুলক কাজ করার ফলে নিজের মধ্যে হীনমন্নতাতে ভোগা।

আমাদের সমাজে ডিপ্রেশন রোগটা এমনভাবে ছড়িয়েছে যেনো ডিপ্রেশন ছাড়া আসলে কেউ নেই এমন একটা অবস্থা। তাই এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে,কারন এটি একটি মানুষিক রোগ। এজন্য আমরা একে অন্যকে হেল্প এর মাধ্যমে ডিপ্রেশন থেকে সবাই কে রক্ষা করতে পারি।আপনি যদি কোনো কারণে ডিপ্রেশনে ভুগেন তাহলে আপনি শারীরিক ও মানসিকভাবে কিন্তু বিকারগ্রস্ত হয়ে যাবেন। যেটা আপনার লাইফ ক্যারিয়ারে বিরাট ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। এতে আপনি আপনার লাইফে কখনো কখনো সফলতা নাও হতে পারেন। কারণ কোন কাজে আপনার ভালোভাবে মন না বসলে কোন কাজ ভালোভাবে করতে পারবেন না যার কারণ হতে পারে ডিপ্রেশন!

তাই আমাদের সবারই উচিত ডিপ্রেশন থেকে বের হয়ে আসা। এজন্য আপনাকেই নিতে হবে প্রথম পদক্ষেপ। এজন্য কি করবেন?
এজন্য পরিবারের সাথে এ বিষয়ে খোলাখুলি আলোচনা করবেন এবং আপনার কোন সমস্যা থাকলে সে বিষয়টিও তাদের সাথে শেয়ার করতে হবে মনে রাখবেন পরিবার এই প্রথম প্রায়োরিটি।

  • মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ কোন ব্যক্তির সাথে পরামর্শ করুন।
  • নিয়মিত নামাজ পড়ুন,এতে মন ভালো থাকবে এবং শারীরিক ব্যায়ামও হয়ে যাবে।
  • পরিবারের সাথে সময় কাটান।
  • ভালো কোনো বন্ধু বান্ধবীদের সাথে সময় কাটান।
  • আপনার যেটা ভালো লাগে সেটা করুন তবে অবশ্যই ভাল কাজ কোন খারাপ কাজ নয়।
  • কোনো ভুল কাজ করলে সেটা থেকে নিজেকে সরিয়ে আনতে চেষ্টা করবেন।
  • কারো কাছে কোন দায়বদ্ধতা থাকলে সেটার কারণে ডিপ্রেশন আসতে পারে কিন্তু তাই তার জন্য দায়বদ্ধকৃত ব্যাক্তির সাথে কথা বলুন।
  • কারো সাথে খারাপ ব্যবহার করলে আপনার ভুল অপকটে স্বীকার করে ফেলবেন।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করুন, এতে শরীর ও মন ভালো থাকবে।
  • খুব সকালে ঘুম থেকে উঠবেন এবং। তাড়াতাড়ি শুয়ে পরবেন।
  • নিজেকে একটু ভালো করে সময় দিবেন।
  • সুযোগ থাকলে এমন কোথাও ঘুরতে যাবেন যেখানে গেলে আপনার মনটা ভাল হয়ে যাবে।
  • নিয়মিত স্বাস্থ্যসম্মত খাবার খাবেন।
  • নেশাজাতীয় দ্রব্য থেকে বিরত থাকবেন।
  • বাজে বন্ধুবান্ধবিেদের কে ত্যাগ করবেন।

ডিপ্রেশন হচ্ছে এমন একটা রোগ যেটা তে আমরা সবাই কম বেশি আক্রান্ত।কেউ হয়তো বা একটু বেশি আবার কেউ হয়তো বা একটু কম কিন্তু আমাদের সবার মধ্যেই এই রোগটার বাতাস বয়ে গেছে। একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে যে ৮% টিনেজাররা ডিপ্রেশনের ভুগে।তাই আমাদের উচিত সব কিছু বিবেচনা করে নিজের ভাল দিক গুলো কে পজিটিভলি নিয়ে ভাল ভাবে চলা।

Leave a Reply

Back to top button